পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষনা দিলো ভারত সরকার

পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষনা দিলো ভারত সরকার

সাম্প্রতিক বিশ্ব

অভ্যন্তরীণ প্রাপ্যতা বৃদ্ধি ও দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে আগামী বছরের (২০২৪ সালের) মার্চ পর্যন্ত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষনা দিলো ভারত সরকার।

আজ শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) থেকে অন্যান্য দেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষনা দিলো ভারত সরকার। বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) ভারতের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়।

আরো পড়ুন : বিশ্বজুড়ে আর্থিক বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে AI | ইউভাল হারারির সতর্কবার্তা

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আগামী বছর অর্থাৎ ২০২৪ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে। অভ্যন্তরীণ প্রাপ্যতা বৃদ্ধি ও দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষনা দিলো ভারত সরকার
ফটো সংগৃহীত

ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফরেন ট্রেডের (ডিজিএফটি) প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, দেশগুলোর অনুরোধের ভিত্তিতে কেন্দ্রীয় সরকার কর্তৃক অন্যান্য দেশকে দেওয়া অনুমতির ভিত্তিতে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমোদন দেওয়া হবে।

আরো পড়ুন :  বার্ড ফ্লু ছড়িয়ে পড়ল ইউরোপে,সাবধানতা অবলম্বনে ফ্রান্সে

প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে আরো জানানো হয়, নিচে প্রকাশ করা ৩টি শর্তের যে কোনো একটি পূরণ হলে পেঁয়াজের চালান রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হবে:

  1. এই প্রজ্ঞাপন জারি করার আগে যেসব জায়গার জন্য জাহাজে পেঁয়াজ তোলা হয়েছে সেগুলো রপ্তানি করা হবে।
  2. শিপিং বিল জমা দেওয়া হয়েছে; পেঁয়াজ লোড করার জন্য জাহাজ ইতোমধ্যে ভারতীয় বন্দরে এসে নোঙর করেছে এবং এই প্রজ্ঞাপনের আগে সেগুলোর রোটেশন নম্বর বরাদ্দ করা হয়েছে। এবং প্রজ্ঞাপনের আগে পেঁয়াজ লোড করার জন্য জাহাজের নোঙর/বার্থিং সম্পর্কিত সংশ্লিষ্ট বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নিশ্চিত হওয়ার পরেই এ ধরনের জাহাজে লোডিংয়ের অনুমোদন প্রদান করা হবে।
  3. পেঁয়াজের চালান এই প্রজ্ঞাপনের পূর্বে কাস্টমসের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে এবং তাদের সিস্টেমে নিবন্ধিত হয়েছে/যেখানে এই প্রজ্ঞাপন জারির পূর্বে রপ্তানির জন্য চালান কাস্টমস স্টেশনে প্রবেশ করেছে এবং এই প্রজ্ঞাপন জারির পূর্বে কাস্টমস স্টেশনে প্রবেশকরা পণ্যগুলোর তারিখ ও সময় স্ট্যাম্পিংয়ের যাচাইযোগ্য প্রমাণসহ কাস্টমস স্টেশনের সংশ্লিষ্ট কাস্টোডিয়ানের ইলেকট্রনিক সিস্টেমে নিবন্ধিত হয়েছে।
আরো পড়ুন :  ইসরায়েল ৪০ হাজার টন বোমা ফেলেছে গাজায়

এর আগে ২০ আগস্ট ২০২৩ ভারতের অর্থ মন্ত্রণালয়ের রাজস্ব বিভাগ বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করে, যার ফলে স্থানীয় বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যায়।

আরো পড়ুন : বার্ড ফ্লু ছড়িয়ে পড়ল ইউরোপে,সাবধানতা অবলম্বনে ফ্রান্সে

পরে ভারত সরকার ২৯ অক্টোবর থেকে আবার পেঁয়াজ রপ্তানির জন্য ফ্রি-অন-বোর্ড ভিত্তিতে টন প্রতি ন্যূনতম রপ্তানি মূল্য (এমইপি) ৮০০ মার্কিন ডলার নির্ধারণ করে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *