তুফান মুভি,

তুফান মুভি: শাকিবের লক্ষ্য ১০০ কোটি, ইতিহাস সৃষ্টি করতে চান রাফী!

বিনোদন

হ্যাঁ, কদিন ধরে যে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল, সেটাই সত্য। হালের হিট নির্মাতা রায়হান রাফীর নির্মাণে নতুন ছবিতে অভিনয় করছেন শাকিব খান। যেটার নাম ‘তুফান’। আর এই ছবির প্রযোজনায় রয়েছে বাংলাদেশ ও ভারতের তিনটি বড় প্রতিষ্ঠান- আলফা আই, চরকি ও এসভিএফ (কলকাতা)।

ওটিটি প্ল্যাটফর্ম চরকি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেদওয়ান রনির ভাষ্য, “করোনার সময় বলাবলি হয়েছিল যে, সিনেমা হলের দিন শেষ। কিন্তু সেটা আসলে হয়নি। কেননা সিনেমা হলো একটি এক্সপেরিয়েন্স, যেটা প্রেক্ষাগৃহে উপভোগ করা যায়। আর কোনও সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে হিট হলে যে ওটিটিতে হবে না, তাও না। যেটার উদাহরণ ‘সুড়ঙ্গ’। এটা সিনেমা হলের পাশাপাশি চরকিতেও সুপারহিট হয়েছে।”

আরো পড়ুন : ‘তুফান’ আসছে ঈদে, ঘোষণা দিলেন শাকিব

আরো পড়ুন :  ভালোবাসা দিবসে মুক্তি পাবে ‘নাকফুল’

নাম-নির্মাতা-নায়কের ঘোষণা দিলেও ‘তুফান’র নায়িকা কিংবা অন্যান্য কোনও তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। সেটাকে বাড়তি চমক হিসেবে গোপন রাখছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে ঘোষণার সঙ্গে একটি প্রাথমিক পোস্টারও প্রকাশ করা হয়েছে। এতে দেখা যায়, চোখে সানগ্লাস, ঠোঁটে সিগারেট নিয়ে আগ্রাসী ভঙ্গিমায় শাকিব; তার দুই হাতে দুটি বন্দুক। বোঝাই যাচ্ছে, নামের মতো ছবিটিও অ্যাকশন ধাঁচের হতে চলেছে। আগামী কোরবানির ঈদে এটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে।

ঢালিউড তারকার স্বপ্ন, একদিন তার সিনেমাও ১০০ কোটি টাকা আয় করবে। সে বিষয়ে তার ভাষ্য, ‘আমরা কিন্তু অধীর আগ্রহে বসে আছি, ১০০ কোটির ক্লাবে কবে যাবো। ওই দিন বেশি দূরে নয়, যেদিন আমাদের সিনেমার জন্য ১০০ কোটি টাকাও কম মনে হবে। উত্তর আমেরিকায় বাংলা সিনেমার প্রায় ২৫-৩০ লাখ দর্শকের একটা বাজার তৈরি হয়ে আছে। বাকি ছিল দুই ইন্ডাস্ট্রির সমন্বয়ে কাজ করা। এবার সেটাও হলো।’

আরো পড়ুন :  বলিউডে হিরো আলমের নায়িকা রাখি সাওয়ান্ত!
তুফান মুভি,
তুফান মুভি পোস্টার

বক্তব্য শেষে মজার ছলে শাকিব আবদার করেন, সিনেমা যদি ১০০ কোটি টাকা আয় করে, তাহলে তাকে যেন ২৫ শতাংশ লভ্যাংশ দেওয়া হয়।

‘তুফান’ নিয়ে আপাতত বেশি কিছু বলেননি নির্মাতা রাফী। শুধু বললেন, ‘এতটুকু বলতে পারি, দেশের সবচেয়ে বড় সুপারস্টার থাকছেন। ইনশাআল্লাহ এমন ছবি বানাবো, যেটা ইতিহাস হয়ে থাকবে।’

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আলফা আই-য়ের কর্ণধার শাহরিয়ার শাকিল বললেন, ‘এটা মূলত বাংলাদেশি সিনেমা। এতে তিনটি প্রতিষ্ঠান যুক্ত হয়েছে। এর মধ্যে একটি প্রতিষ্ঠানের (এসভিএফ) মূল মালিকানা ভারতের। ছবিটা ভারতের সঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই মুক্তি পাবে। তবে ছবিটা বাংলাদেশেরই।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *