images 6

ট্রেনের নিচে কাটা পড়লেন পুরস্কারপ্রাপ্ত তরুণ নির্মাতা

বাংলাদেশ

হেডফোনে কথা বলতে বলতে রেললাইন পার হচ্ছিলেন তরুণ নির্মাতা নূর ই আলম তৈমুর। ঠিক তখনই দুই দিক থেকে ধেয়ে আসছিল দুটি ট্রেন। একটি খেয়াল করলেও ক্ষণিকের অসচেতনায় চোখে পড়েনি অপর ট্রেন। আর তাতে কাটা পড়ে প্রাণ হারালেন তৈমুর। 

আরো পড়ুন: আবারো রাশিয়ায় ৩ হাজার সেনা পাঠানোর ঘোষণা ‘কাদির ভের’

ঘটনাটা আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে খিলক্ষেত এলাকায়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রেল পুলিশের বিমানবন্দর ফাঁড়ির ইনচার্জ সানু মং মারমা। ৩৪ বছর বয়সী নূর ই আলম তৈমুর বেসরকারি সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেনের কর্মকর্তাও। সাত মাস বয়সী  এক সন্তানের বাবা তৈমুরের বাড়ি ঢাকার মোহাম্মদপুরে। খিলক্ষেত এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে থাকতেন তিনি।

আরো পড়ুন :  সময় বাড়ানো হলো হজ নিবন্ধনের

তৈমুরের নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ২০২২ সালে জাপানের ডিজি কন ৬ এশিয়া কনটেস্টে পুরস্কৃত হয়েছিল। ‘দ্য আদার সাইড’ ও ‘যাত্রা’ নামের আরও দুটি স্বল্পদৈর্ঘ্য তিনি তৈরি করেছেন। স্বপ্ন ছিল বড় নির্মাতা হওয়ার। তবে অকালেই সেটা ঝরে গেল তৈমুরের স্বপ্ন

 

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে জানা যায়, তৈমুর কানে হেডফোন লাগিয়ে কথা বলতে বলতে রেললাইন পার হচ্ছিলেন। ওই সময় দুই দিক থেকে দুটি ট্রেন আসছিল। তৈমুর একটি ট্রেন দেখলেও অন্যটি খেয়াল করেননি। চট্টগ্রামগামী মহানগর প্রভাতী ট্রেনে কাটা পড়েন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *