Gaza 5

চার কোটি টাকার পন্যসহ কর্ণফুলী নদীতে জাহাজডুবি

বাংলাদেশ বাণিজ্য

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীতে পণ্যবাহী একটি লাইটারেজ জাহাজ ডুবে গেছে। সরকারের আমদানি করা প্রায় চার কোটি টাকা দামের এমওপি সারসহ “এমভি মাকসুদা- ২” নামের জাহাজটি ডুবে যায়।

গতকাল রবিবার (১০ ডিসেম্বর) রাত ৯টার সময় সদরঘাট এলাকার মাঝিরঘাটের বাংলাবাজার আনু মাঝির ঘাট এলাকায় কর্ণফুলী ড্রাইডকের কাছে জাহাজটি ডুবে গেছে। এসময়, ডুবে যাওয়ার আগেই নদীতে ঝাঁপ দিয়ে অল্পের জন্য প্রান বাঁচিয়েছেন জাহাজটির ১৩ জন নাবিক ও শ্রমিক। তাদেরকে অপর একটি লাইটারেজ জাহাজ দিয়ে উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুনঃ কোরআন পোড়ানো নিষিদ্ধ হলো ডেনমার্কে

আরো পড়ুন :  নির্বাচন নিয়ে আস্থাহীনতায় আছে দেশের মানুষ: জিএম কাদের

লাইটারেজ জাহাজের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেল (ডব্লিউটিসি) ও মিউচুয়েল শিপিং এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক পারভেজ আহমেদ  জানিয়েছেন, সরকারের আমদানিকৃত ২৫ হাজার টনেরও বেশি এমওপিম (পটাশ) সার নিয়ে এমভি তুর নিরামত নামের মাদার ভ্যাসেল চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙর করে। সেখান থেকেই ‘এমভি মাকসুদা–২’ নামের লাইটারেজ জাহাজের মাধ্যমে সারগুলো সদরঘাট এলাকার মাঝিরঘাটের বাংলাবাজার আনু মাঝির ঘাটে বোঝাই করে ১৬শ টন সার গতরাত ৯ টা নাগাদ ঘাট এলাকায় পৌঁছে। জাহাজটিকে নোঙর করার সময় জাহাজটি ধীরে ধীরে ডুবে যেতে দেখা যায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ডুবে থাকা কোনো বস্তুর সাথে ধাক্কা খেয়ে জাহাজটির তলা ফেটে যায় এবং ডুবতে শুরু করে। মুহূর্তের মধ্যেই প্রায় চার কোটি টাকার সারসহ জাহাজটি জনসম্মুখে পুরোপুরি কর্ণফুলী নদীতে ডুবে যায়।

আরো পড়ুন :  খাদ্যের বাড়তি দাম নিয়ে বাংলাদেশের ৭১ শতাংশ পরিবারের উদ্বেগ

সদরঘাট কোস্ট গার্ড কর্মকর্তা রতন খান জানান, জাহাজডুবির খবর পেয়ে আমরা তৎক্ষণাৎ জাহাজ উদ্ধারের কাজে উপস্থিত হয়েছি এবং উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।এবং জাহাজে থাকা সকল শ্রমিকদের উদ্ধার করেছি।

তবে এই জাহাজটি কী কারণে ডুবেছে এখন পর্যন্ত তার নির্দিষ্ট কোনো তথ্য দেয়নি কোস্টগার্ড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *