images 7

ঘূর্ণিঝড় হতে পারে,লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে সাগরে

বাংলাদেশ

ঘূর্ণিঝড় মিধিলির প্রভাব কাটতে না কাটতেই আরও একটি ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে সাগরে। দক্ষিণ আন্দামান সাগরে এরই মধ্যে তৈরি হয়েছে একটি লঘুচাপের। 

আরো পড়ুন:লঘুচাপ নিয়ে যা জানাল আবহাওয়া অফিস

এটি আরও ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। লঘুচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে এর নাম হবে মিচাং এবং এই নামটি মিয়ানমারের দেওয়া।

আবহাওয়া পূর্বাভাস বলছে, দক্ষিণ আন্দামান সাগরের লঘুচাপটি আগামী কয়েকদিনে পশ্চিম-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে আরও ঘনীভূত হতে পারে। লঘুচাপটি উপকূলের কাছাকাছি আসতে আরো কিছুদিন সময় লাগবে।

আরো পড়ুন :  ১লা ডিসেম্বর থেকে চালু হচ্ছে ‘কক্সবাজার এক্সপ্রেস’

আবহাওয়া অফিস থেকে জানিয়েছে, লঘুচাপটি নিম্নচাপ হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে এর নাম হবে মিগজাউম। এর প্রভাবে আগামী ৩ ও ৪ ডিসেম্বর উপকূলীয় অঞ্চলে বৃষ্টি হতে পারে।

গত ১৭ নভেম্বর উপকূলে আঘাত করে ঘূর্ণিঝড় মিধিলি। আঘাত হানার পর ঘূর্ণিঝড়টির শক্তি কমে আসে। মিধিলি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়নি। এরপরও ঝড়ের কারণে নানা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে উপকূলীয় এলাকাসহ বিভিন্ন জায়গায়। ঝড়ের প্রভাবে বৃষ্টির কারণে সরকারি হিসাবে দেশের অন্তত ১৫ জেলায় ফসলের ক্ষতি হয়েছে।

আরো পড়ুন :  বেনাপোল এক্সপ্রেসে আগুন : পবিত্র কোরআন ছুঁয়ে স্বীকারোক্তি দিলেন যুবদল নেতা

মিধিলির প্রভাবে টানা বৃষ্টি এবং গাছ ও দেয়ালচাপায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ৭ জনের মৃত্যু হয়। এর মধ্যে কক্সবাজারের টেকনাফে দেয়াল ধসে ৪ জন এবং চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ, মিরসরাই ও টাঙ্গাইলে ঝড়ে গাছ পড়ে ৩ জন মারা যান।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *